পাকিস্তানি কর্তৃপক্ষ তাকে শারীরিক নির্যাতন করেনি-অভিনন্দন

0
7

ভারতীয় বিমান বাহিনীর উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমান দাবি করেছেন, পাকিস্তানি কর্তৃপক্ষ তাকে শারীরিক নির্যাতন করেনি, তবে উল্লেখযোগ্য ভাবে মানসিক নির্যাতন করেছেন। শনিবার বার্তা সংস্থা এএনআইয়ের উদ্ধৃতি দিয়ে একথা জানায় ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি।

খবরে বলা হয়, পাকিস্তানের হেফাজতে ৬০ ঘণ্টা থাকাকালীন তার ওপর শারীরিক অত্যাচার না হলেও ‘মানসিক নির্যাতন’ চালিয়েছিল পাকিস্তান। 

নিয়ন্ত্রণ রেখা অতিক্রম করে পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে প্রবেশের পর অভিনন্দনের মিগ-২১ গুলি করে ভূপাতিত করে করে পাকিস্তান। এরপর ভারতীয় বিমান বাহিনীর এই পাইলটকে বুধবার পাকিস্তানি সেনাবাহিনী নিজেদের হেফাজতে নেয়।

নিয়ন্ত্রণরেখার ওপরে দুই দেশের আকাশে সামরিক সংঘর্ষের সময় অভিনন্দন বর্তমানের চালানো মিগ-২১ বিমানটি ধ্বংস হয়ে যায়। প্যারাশুটে করে সেই সময় নেমে আসেন তিনি। নামার পরেই ক্ষুব্ধ স্থানীয় বাসিন্দাদের পিছু হঠানোর জন্য হাওয়ায় গুলি চালান। তারপর ঝাপ দেন কাছের একটি পুকুরে এবং তার সঙ্গে থাকা সমস্ত তথ্যপ্রমাণ খেয়ে ফেলে নষ্ট করে দেন।

তাকে নিজেদের হেফাজতে নেওয়ার পর একটি ভিডিও প্রকাশ করে পাকিস্তান সোশ্যাল মিডিয়ায়। সেই ভিডিওটিতে দেখা যায়, অভিনন্দন বর্তমানকে প্রশ্ন করা হচ্ছে, যে বিমানটি তিনি চালাচ্ছিলেন, তা নিয়ে। তার জবাবে অভিনন্দনকে বলতে শোনা যায়- ‘দুঃখিত মেজর, আমি এর উত্তর আপনাকে দিতে পারব না।’

ঠিক এই জায়গা থেকেই তিনি অচিরেই যেন হয়ে ওঠেন সোশ্যাল মিডিয়ার তথা এই ভারতের নতুন ‘নায়ক’, জানায় এনডিটিভি।

সীমান্ত পেরিয়ে ভারতে পা রাখার পর তার রুটিন মেডিক্যাল চেক-আপের জন্য তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেই হাসপাতালেই তাকে দেখতে আসেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। তিনি অভিনন্দনকে জানান, তার জন্য গোটা দেশ গর্ব অনুভব করছে। তার সাহস ও কাজের প্রতি সততা এবং নিষ্ঠার কথা এখন প্রতিটি দেশবাসীর হৃদয়ে।

সংবাদ সংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, পাকিস্তানের হেফাজতে কাটানো ওই ৬০ ঘণ্টার অনেক কথা প্রতিরক্ষামন্ত্রীকে জানান অভিনন্দন বর্তমান।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য লিখুন!
দয়া করে আপনার লিখুন